✍ পছন্দের চাকরি বা পরীক্ষার নোটিশ খুঁজুন ⇩

ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষা বিভাগওয়ারি গ্রহণের উদ্যোগ নিন

বিভাগীয় শহরে পরীক্ষা নেওয়া এখন সময়ের দাবি
http://www.ittefaq.com.bd/print-edition/assets/images/news_images/2017/08/21/1503243720.jpg
এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এক সময়ের ‘তলাবিহীন ঝুড়ি’ নামে আখ্যায়িত বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মডেল হিসেবে বহির্বিশ্বে পরিচিত। দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, দারিদ্র্য হ্রাস, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে অভাবিত সাফল্য অর্জিত হলেও জনবহুল এই দেশে এখনও বেকারত্বের হার অনেক বেশি। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) শ্রমশক্তি জরিপ অনুযায়ী দেশে কর্মক্ষম বেকারের সংখ্যা প্রায় ২৬ লাখ। আবার ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) তথ্য মতে, বাংলাদেশে শিক্ষিত বেকারের হার সবচেয়ে বেশি। বর্তমান চাকরির বাজারে পছন্দের শীর্ষে রয়েছে বিসিএস। তবে সামাজিক মর্যাদা ও স্মার্ট পেশা হিসেবে ব্যাংকিং পেশাও চাকরিপ্রার্থীদের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যান্য সরকারি ব্যাংকগুলোয় যারা ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী, তাদের জন্য সুবর্ণ সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের আদলে গঠিত হয়েছে বিএসসি (ব্যাংকারস সিলেকশন কমিটি)। এর আওতায় বিনা টাকায় নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ, যে কোনো বিষয়ের স্নাতকধারীদের সব ব্যাংকে আবেদন করার সুযোগ তৈরির পাশাপাশি সরকারি ব্যাংকগুলোয় নিয়োগের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হচ্ছে।

পদ্ধতিটি চাকরিপ্রার্থীদের জন্য মঙ্গলজনক হলেও এসব পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে গিয়ে তারা নানারকম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। ইতিপূর্বে বিভিন্ন ব্যাংকে অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষার ক্ষেত্রে দেখা গেছে, একই মাসে একাধিক নিয়োগ পরীক্ষা থাকায় একজন প্রার্থীকে মাসে ৪-৫ বার ঢাকায় আসতে হচ্ছে। যেমন- চলতি বছরের জুলাই মাসের ১৪ জুলাই অগ্রণী ব্যাংকের লিখিত পরীক্ষা এবং ২৮ জুলাই কৃষি ব্যাংকের এমসিকিউ এবং আগস্ট মাসের ৪ তারিখে জনতা ব্যাংকের এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া সেপ্টেম্বর মাসের ৮, ১৫, ২২, তারিখে যথাক্রমে ইসলামি ব্যাংক, কৃষি ব্যাংক ও জনতা ব্যাংকের লিখিত নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, যদিও পূজার কারণে তা স্থগিত করা হয়েছে।
একই মাসে একাধিক ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় ঢাকায় অবস্থানরত চাকরিপ্রার্থীদের তেমন কোনো সমস্যা না হলেও রাজধানীর বাইরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, বিশেষ করে নারী চাকরিপ্রার্থীরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। দেশের প্রত্যন্ত এলাকা থেকে একই মাসে একাধিকবার ঢাকায় আসা যেমন কষ্টকর, তেমনি ব্যয়বহুল, যা বেকারদের জন্য সামাল দেয়া অত্যন্ত কঠিন। তাছাড়া ঢাকায় যাওয়া-আসার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত-নিহত হওয়ার ঘটনাও ঘটছে। অগ্রণী ব্যাংকের পরীক্ষা শেষে বরিশাল ফেরার পথে রাজধানীর ইডেন কলেজের সামনে বাসচাপায় প্রাণ হারান পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ ৮ম ব্যাচের ছাত্রী সঞ্চিতা দাস।

সমন্বিতভাবে বিভিন্ন ব্যাংকের পরীক্ষা এক সঙ্গে অনুষ্ঠিত হলেও সে ক্ষেত্রে প্রার্থীকে বারবার ঢাকায় আসতে না হলেও একটি পরীক্ষার জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দুই লক্ষাধিক পরীক্ষার্থীর ঢাকায় আগমন নগরবাসীর স্বাভাবিক জীবনে ছন্দপতন ঘটাবে, এতে কোনো সন্দেহ নেই। সরকারি ছুটির দিনেও সকাল থেকে তীব্র যানজটে নাকাল হবে নগরবাসী। আর চাকরিপ্রার্থীদের চরম ভোগান্তি তো আছেই। তাই আমরা মনে করি, বিসিএস পরীক্ষার ক্ষেত্রে যেমন বাংলাদেশ কর্মকমিশন দেশের বিভাগগুলোয় প্রিলিমিনারী ও লিখিত পরীক্ষা নিচ্ছে, তেমনিভাবে চাকরিপ্রার্থীদের ভোগান্তি কমাতে বিএসসি (ব্যাংকারস সিলেকশন কমিটি) দেশের বিভাগীয় শহরে প্রিলিমিনারী ও লিখিত পরীক্ষা গ্রহণের উদ্যোগ নেবে, এটাই প্রত্যাশা।
শিক্ষার্থী, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

source: www.jugantor.com

পোস্টটি শেয়ার করুন ...

"Job Circular " Android App

সবার আগে প্রতিদিনের বিভিন্ন পত্রিকা এবং অনলাইনে প্রকাশিত সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের চাকরির বিজ্ঞপ্তি, পরীক্ষার নোটিশ ও নিয়োগ প্রস্তুতি নিয়ে এই অ্যাপ।
প্রধান বৈশিষ্ট্য
🔔 "Notification" এর মাধ্যমে আপনি অ্যাপ Open না করেই আপনার মোবাইলের Notification বার এ জানতে পারবেন গুরুত্বপূর্ণ চাকরির খবর এবং পরীক্ষার নোটিশ। বিস্তারিত জানুন
Get it on Google Play

FB Comments
Comments
Disqus
Comments :

Comments