✍ পছন্দের চাকরি বা পরীক্ষার নোটিশ খুঁজুন ⇩

ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় নতুন করে যে সতর্কতা

ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস রোধে নতুন করে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এখন থেকে এসব পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, স্মার্টওয়াচ ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না। ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে হবে। বেঁধে দেয়া এই সময়ের ৫ মিনিট পরে গেলে প্রার্থীকে হলে ঢুকতে দেয়া হবে না। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

http://www.channelionline.com/wp-content/uploads/2017/10/Exam-.jpg

বেশ কয়েকবার ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটেছে। এর প্রেক্ষিতে সম্পূর্ণ সচেতন রয়েছে কর্তৃপক্ষ। তাই পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস ও বিভিন্ন অনিয়ম ঠেকাতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়।

চলতি বছরের ১৯ মে অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। পরে ওই পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। এর আগে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ব্যাংকের নির্বাহী কর্মকর্তা পদে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছিল। গত ২১ এপ্রিল এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ১০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার (নিরীক্ষক) পদের নিয়োগ পরীক্ষা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির মহাব্যবস্থাপক মোশাররফ হোসাইন খান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, পরীক্ষায় কোনো ধরনের ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করতে দেয়া হবে না। এমনকি রাস্তায় জ্যামে পড়ার কারণে কারো যদি ৫ মিনিট দেরি হয় তাকেও হলে ঢুকতে দেয়া হবে না। তবে দুঃখের সাথে বলতে হয়, পরীক্ষায় একজন অপরাধ করে আর এর নেতিবাচক ফলাফল ভোগ করতে হয় সবাইকে।

তিনি বলেন, এই পর্যন্ত নিয়োগ পরীক্ষায় যারা বিভিন্ন ডিভাইস বা মোবাইল ব্যবহার করেছে। সেগুলো সব উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয়েছে। ফেরত দেয়া হয়নি।

‘পরীক্ষার প্রশ্নফাঁশের কোনো প্রমাণ পেলে সরাসরি বাংলাদেশ ব্যাংকে জানাবেন। উপযুক্ত প্রমাণ পেলে সাথে সাথেই নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করা হবে।’

অতীতের ইতিহাস টেনে মোশাররফ হোসাইন খান বলেন, আমার জানামতে প্রশ্নফাঁস হয় মূলত পরীক্ষার দিন। ওইদিন পরীক্ষার্থীরা প্রশ্ন পাওয়ার সাথে সাথেই এক ধরনের ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করে। ওই ডিভাইসের মাধ্যমে তারা বাইরে প্রশ্ন পাঠিয়ে দেয়। এইভাবেই প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটে। তবে আশাকরি এবার প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটবে না। কঠিন সতর্কতার সঙ্গে পরীক্ষা নেয়া হবে।

জানা গেছে, অগ্রণী ব্যাংকের এবারের পরীক্ষা নেওয়ার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগকে। জানতে চাইলে অর্থনীতি বিভাগের চেযারম্যান অধ্যাপক ড. নাজমা বেগম চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, আসলে এই বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।

১০ নভেম্বর অগ্রণী ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের পাঁচটি কেন্দ্রে। পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা। পূর্ণমান থাকবে ১০০ নম্বরের। পরীক্ষা হবে এমসিকিউ পদ্ধতিতে। পরীক্ষার প্রবেশপত্র পাওয়া যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে (https://erecruitment.bb.org.bd)। প্রবেশপত্র ছাড়া কোনো প্রার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না।

Collected

পোস্টটি শেয়ার করুন ...

"Job Circular " Android App

সবার আগে প্রতিদিনের বিভিন্ন পত্রিকা এবং অনলাইনে প্রকাশিত সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের চাকরির বিজ্ঞপ্তি, পরীক্ষার নোটিশ ও নিয়োগ প্রস্তুতি নিয়ে এই অ্যাপ।
প্রধান বৈশিষ্ট্য
🔔 "Notification" এর মাধ্যমে আপনি অ্যাপ Open না করেই আপনার মোবাইলের Notification বার এ জানতে পারবেন গুরুত্বপূর্ণ চাকরির খবর এবং পরীক্ষার নোটিশ। বিস্তারিত জানুন
Get it on Google Play

FB Comments
Comments
Disqus
Comments :

Comments