চাকরি দেয়ার নামে টাকা নিয়ে পালানোর সময় প্রতারক আটক

নওগাঁর বদলগাছী গ্রিন ওয়ার্ড লিমিটেড নামক একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান পরিচয় দিয়ে চাকরি দেয়ার নাম করে টাকা নিয়ে পালানোর সময় কোরবান আলী নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভুক্তভোগী নাটোর জেলার সিংড়া থানার ঝিনা গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে আশরাফুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান কোরবান আলীসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।  আটক কোরবানকে নওগাঁ জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
 
https://www.jugantor.com/assets/images/news_images/online/2017/12/12/naogaon_66064_1513089399.jpg

কোরবান আলী রাজশাহী জেলার বাগামারা উপজেলার পানিয়া গ্রামের এমরান আলীর ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত সাত মাস আগে বদলগাছী জেলার ভান্ডারপুর বাজারের পাশে আল-আমিনের বাড়ি ভাড়া নিয়ে প্রধান কার্যালয় ও গ্রিন ওয়ার্ড লিমিটেড নামক একটি প্রতিষ্ঠান চালু করেন কোরবান আলী।  তিনি নিজেকে ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান পরিচয় দিতেন।  সেখানে ইলেকট্রনিক ও কনজুমার পণ্য বাজারজাত করতে তার প্রতিষ্ঠানে টাকা নিয়ে লোক নিয়োগ করেন।  এছাড়া প্রতিষ্ঠান প্রসারের জন্য বিভিন্ন জেলায় মোটা অংকের টাকা জামানত নিয়ে ডিলার নিয়োগ শুরু করেন।  চাকরি দেয়ার নাম করে প্রায় ৫০ জন লোকের কাছ থেকে প্রায় ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।

অফিসের নিয়োগ দেয়ার পর থেকে কর্মচারীরা সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত নিয়মিত আসা যাওয়া করত। কিন্তু গত ছয় মাস কোন কর্মচারীকে বেতন ভাতাদি পরিশোধ করেননি।  কর্মচারীরা বারবার তাগাদা দিলেও আজ-কাল দেব বলে কালক্ষেপণ করা হয়।  সর্বশেষ গত ৫ ডিসেম্বর আবারও বেতনের জন্য তাগাদা দেয় কর্মচারীরা।

এ সময় প্রত্যারক কোরবান আলী নতুন একটি কোম্পানি আসলে আগামী বছর থেকে বেতন দেয়া হবে বলে ভাণ্ডারপুর বাজারের প্রধান কার্যালয় থেকে থেকে বেরিয়ে যান।  এরপর থেকে অফিসে না এসে তিনি আত্মগোপন করেন।  সোমবার দুপুরে উপজেলার খলশি বাজারে কোরবান আলীকে দেখে ভুক্তভোগীরা ধরে থানায় নিয়ে যায়।  এ বিষয়টি মামলার বাদী জানতে পেরে নাটোর থেকে ছুটে আসেন।

উপজেলার উত্তর পারিচা গ্রামের মোস্তাকিম বলেন, নৈশ প্রহরী পদে ছয় হাজার টাকা বেতনে চাকরি দেয়ার নাম করে  গত ছয় মাস আগে ২০ হাজার টাকা জামানত দিয়েছে।  এ পর্যন্ত কোন বেতন পায়নি।  গত কয়েকদিন তাকে আর অফিসে পাওয়া যাচ্ছেনা।

মামলার বাদী আশরাফুল ইসলাম বলেন, নাটোর জেলার সিংড়া থানায় শাখা অফিসে শাখা প্রধান পদে ১৩ হাজার টাকা মাসিক বেতনে চাকুরি দেয়ার জন্য গত তিন মাস আগে তিনি ও নাতি রাশেদুল ইসলাম মিলে সাত লাখ টাকা জামানত দেন।  তিন মাস থেকে কোনো বেতন দেয়া হয়নি।  বার বার বেতনের জন্য তাগাদা দেয়া হলেও তিনি কোনো কর্ণপাত করেননি।  সাত বিঘা জমি বন্ধক ও সুদের উপর টাকা নিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানে দিয়েছেন বলে জানান।

এ বিষয়ে নওগাঁর বদলগাছী থানার ওসি জালাল উদ্দিন বলেন, মঙ্গলবার থানায় একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে। আসামিকে নওগাঁ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।  বাকিদেরও আটকের চেষ্টা চলছে।
 
যুগান্তর-   প্রকাশ : ১২ ডিসেম্বর 

পোস্টটি শেয়ার করুন ...

"Job Circular " Android App

সবার আগে প্রতিদিনের বিভিন্ন পত্রিকা এবং অনলাইনে প্রকাশিত সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের চাকরির বিজ্ঞপ্তি, পরীক্ষার নোটিশ ও নিয়োগ প্রস্তুতি নিয়ে এই অ্যাপ।
প্রধান বৈশিষ্ট্য
🔔 "Notification" এর মাধ্যমে আপনি অ্যাপ Open না করেই আপনার মোবাইলের Notification বার এ জানতে পারবেন গুরুত্বপূর্ণ চাকরির খবর এবং পরীক্ষার নোটিশ। বিস্তারিত জানুন
Get it on Google Play

FB Comments
Comments
Disqus
Comments :

Comments